Tuesday, September 27, 2022

রামগতিতে অতি জোয়ারে কৃষি ও মৎস্য সেক্টরের ক্ষয়ক্ষতি

মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে পূর্ণিমার প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় অতি জোয়ারের পানি প্রবেশ করে কৃষি ও মৎস্য সেক্টরের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

গত কয়েক দিনে স্বাভাবিকের চেয়ে ৩/৪ ফুট উচ্চতায় অতি জোয়ারের পানি প্রবেশ করে উপকূলীয় রামগতির চর গাজী, বড়খেরী, চর রমিজ, চর আলগী, রামগতি পৌরসভা ও চর আলেকজান্ডার ইউনিয়নের প্রায় ২০টি গ্রামের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এ সময় জোয়ারের পানিতে ধানের বীজতলা, পুকুরের মাছ চলে গিয়ে কৃষি ও মৎস্য সেক্টরের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সবচেয়ে বেশী ক্ষতির মূখে পড়েছে চর আবদুল্যাহ, লম্বাখালীর চর, তেলির চর, বয়ার চর সহ চরাঞ্চল এলাকার কৃষকরা।

নদী তীরবর্তী হওয়ায় রঘুনাথপুর সপ্রাবি, পল্লি মঙ্গল সপ্রাবি, আলেকজান্ডার আসলপাড়া সপ্রাবি, বালুর চর সপ্রাবি সহ বেশ কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পানি প্রবেশ করলে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান, মাঠে দন্ডায়মান কন্দ জাতীয় ফসলের কোন ক্ষতি হয়নি। তবে ৩/৪টি ইউনিয়নের সামান্য কৃষি জমির ধানের বীজতলার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এখনো সময় আছে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আশারাখি এ সংকট কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে পারবে। কৃষি ও কৃষকদের উৎপাদন অব্যহত রাখতে সব রকমের সহায়তা প্রদান করবে এবং কৃষকের পাশে থাকবে কৃষি বিভাগ।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন জানান, নদী তীরবর্তী গ্রামগুলোতে পানি প্রবেশ করে মাছ চাষের পুকুরগুলো তলিয়ে গিয়ে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে আমরা তা নিরুপণ করার কাজ করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম শান্তুনু চৌধুরী জানান, অতি জোয়ারের পানিতে কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে এতে করে কৃষি ও মৎস্য সেক্টরের কিছু ক্ষতি সাধিত হয়। তবে জোয়ারের পানি উঠে আবার নেমে যাওয়ায় উল্লেখযোগ্য কোন ক্ষয়ক্ষতি হয় নাই।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20
সর্বশেষ সংবাদ