১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ রাত ১:৪৪ শুক্রবার
  1. আন্তর্জাতিক
  2. কমলনগর
  3. কিশোরগঞ্জ
  4. কিশোরগঞ্জ জেলা
  5. খেলাধুলা
  6. চট্টগ্রাম
  7. জাতীয়
  8. তথ্য-প্রযুক্তি
  9. নারী ও শিশু
  10. নোয়াখালি
  11. ফেনী
  12. বিনোদন
  13. ভোলা জেলা
  14. ময়মনসিংহ
  15. রাজনীতি

রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারের হাতে রোগী লাঞ্চিত

প্রতিবেদক
মোহাম্মদ রাসেল পাটওয়ারী
মার্চ ২২, ২০২৪ ৩:০৬ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে হাসপাতালের ডাক্তার কর্মচারীদের মধ্যে ভাগ বাটোয়ারার অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ গোলাম সরোয়ারের হাতে এক রোগীকে লাঞ্ছিত ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। চিকিৎসা নিতে আসা ভূক্তভোগী আবু রায়হান (১৭) ও তার পিতা মো. জামাল মাঝি মাতা ফরিদা বেগমের সাথে এ অসদাচরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হাসপাতালের রোগীসহ স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

ভুক্তভোগী জামাল মাঝি জানান, তার ছেলে আবু রায়হান দীর্ঘদিন জ্বরে ভুগছেন। রোববার (১৭ মার্চ) রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান আবু রায়হানকে। এর আগে তিনি ডা. মো. শাহ আবদুল্লাহ আল মাছুমের ব্যবস্থায় স্থানীয় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে বিভিন্ন পরীক্ষা করান। এ ক্ষোভে সোমবার ভর্তিকৃত আবু রায়হানের চিকিৎসা পত্রাদি দেখে তার কাগজপত্র ছুঁড়ে ফেলে দেন কথিত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ গোলাম সারোয়ার। এসময় রোগীসহ তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ ও লাঞ্ছিত করেন তিনি।

জানাযায়, ডা. গোলাম সরোয়ার খন্দকার ডায়াগনষ্টিক নামের অন্য আরেকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে প্রাইভেট রোগী দেখেন।

বিশ্বস্তসূত্রে জানা যায়, দ্বীর্ঘদিন থেকে অফিস সহকারী আবদুর রহমান ডাক্তার গোলাম সারওয়ার সহ কয়েকজনের একটি সিন্ডিকেট হাসপাতালের ঔষধপত্র সহ বিভিন্ন খাতের টাকা লুটেপুটে খাচ্ছেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ গোলাম সরোয়ার বলেন, রোগী আবু রায়হানের সাথে কিছু হয়নিতো। তিনি সাংবাদিককে অফিসে যাওয়ার অনুরোধ করে মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন।

এবিষয়ে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কামনাশীষ মজুমদার বলেন, হাসপাতালে আসা রোগী আবু রায়হানের বাবা জামাল মাঝি ও মা ফরিদা বেগমকে লাঞ্ছিতের বিষয়টি দুঃখ জনক। সরকারি হাসপাতালে এমনকাজ কখনই কাম্য নহে। বিষয়টি আমাদের দুজন ডাক্তারের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি। হাসপাতালে বসেই আমরা এটি মীমাংসা করে নেবো বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

লক্ষ্মীপুর জেলা সিভিল সার্জন ডা. আহম্মদ কবীর জানান, হাসপাতালে আসা রোগীকে লাঞ্ছিত ও নির্যাতনের বিষয়টি শুনেছি। তবে তদন্তে সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20

সর্বশেষ - কিশোরগঞ্জ