১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ রাত ২:১১ শুক্রবার
  1. আন্তর্জাতিক
  2. কমলনগর
  3. কিশোরগঞ্জ
  4. কিশোরগঞ্জ জেলা
  5. খেলাধুলা
  6. চট্টগ্রাম
  7. জাতীয়
  8. তথ্য-প্রযুক্তি
  9. নারী ও শিশু
  10. নোয়াখালি
  11. ফেনী
  12. বিনোদন
  13. ভোলা জেলা
  14. ময়মনসিংহ
  15. রাজনীতি

রামগতিতে চাঞ্চল্যকর মাষ্টার জবিউল হোসেন হত্যা মামলার রায়

প্রতিবেদক
মোহাম্মদ রাসেল পাটওয়ারী
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৩ ১১:১৬ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে দ্বীর্ঘ এক যুগের বেশী সময় প্রতিক্ষার পর বহুল আলোচিত মাষ্টার জবিউল হোসেন হত্যা মামলার রায় ঘোষনা করেছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলাটি দ্বীর্ঘ ১৪ বছর চলার পর উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক ও শুনানী শেষে বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারী) রায় ঘোষণা করে জেলা ও দায়রা জজ আদালত লক্ষ্মীপুর। রায়ে ১৩ জন আসামীর মধ্যে ৫নং আসামী ফারুক হাওলাদারের ছেলে জুয়েল (২৮) কে ফাঁসি ও ৩নং আসামী মৃত মানিক হাওলাদারের ছেলে মাহবুব ওরপে মফু (২৩) কে যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং বাকি আসামীদের খালাস প্রদান করে আদালত।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় নিহতের ছেলে খালেদ মোশাররফ, মেয়ে সুলতানা বেগম ও রোকেয়া বেগম সহ পরিবারের লোকজন রায়ে সন্তুষ্ট নয় বলে জানান। প্রকৃত খুনি ও অপরাধীরা খালাস পাওয়ায় তারা হতাশ এবং ন্যায় বিচারের জন্য উচ্চ আদালতে যাবেন বলে জানান।

জানা যায়, উপজেলার চর আলেকজান্ডার ইউনিয়নের সেবাগ্রামের কাদের হাজী বাড়ীর হাজী আবদুল কাদের মিয়ার ছেলে মাষ্টার জবিউল হোসেনের মালিকীয় ভোগদখলীয় পৈত্রিক জমিতে জোরপূর্বক মাটি কেটে রাস্তা নির্মানের চেষ্টা করে কুখ্যাত ডাকাত পরিবারের সদস্য সন্ত্রাসী আলাউদ্দিন চৌধুরী গংরা। এ সময় তিনি বাঁধা দিলে তারা চলে যায়। পরদিন তারা পরিকল্পিত ভাবে লাঠিসোঠা, দেশীয় অস্র সহ ফসলী জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কাটতে যায়। তখন স্থানীয় চিহিৃত জোরদার ও লাঠিয়াল পরিবারের আবদুর রশীদের ছেলে আলাউদ্দিন চৌধুরী ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা মিলে অতর্কিত হামলা করে নির্মম ভাবে পিটিয়ে মাষ্টার জবিউল হোসেনকে হত্যা করে।

এ ঘটনায় নিহত মাষ্টার জবিউল হোসেনের ভাই আলহাজ নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে আবদুর রশীদের ছেলে আলাউদ্দিন চৌধুরী, তোফাজ্জল বারীর ছেলে আবদুল্যা, মানিক হাওলাদারের ছেলে মাহবুব ওরপে মানু সহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে রামগতি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন যার নং-১৪ তারিখ: ২৩/০৬/২০০৯খ্রি:।

নিহতের স্বজনরা আরো জানায়, দ্বীর্ঘ ১৪ বছর মামলা চলার পর অবশেষে রায় ঘোষণা করেছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত লক্ষ্মীপুর তবে মামলার ১ ও ২নং আসামী সহ প্রকৃত খুনি ও অপরাধীরা খালাস পাওয়ায় তারা হতাশা ব্যক্ত করেন। এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালতে আপীল করবেন।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20

সর্বশেষ - কিশোরগঞ্জ