১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ভোর ৫:১০ রবিবার
  1. আন্তর্জাতিক
  2. কমলনগর উপজেলা
  3. কিশোরগঞ্জ জেলা
  4. খেলাধুলা
  5. চট্টগ্রাম জেলা
  6. জাতীয়
  7. তথ্য-প্রযুক্তি
  8. নারী ও শিশু
  9. নেত্রকোনা জেলা
  10. নোয়াখালী জেলা
  11. ফেনী জেলা
  12. বিনোদন
  13. ভোলা জেলা
  14. ময়মনসিংহ জেলা
  15. রাজনীতি

সেতুর কাজ ফেলে ঠিকাদার উধাও; চরম দুর্ভোগে হাজারো যাত্রী

প্রতিবেদক
মোহাম্মদ রাসেল পাটওয়ারী
মে ২০, ২০২৩ ১১:৪২ অপরাহ্ণ

মো: জাকির হোসেন, হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: হোসেনপুর-পাকুন্দিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের নরসুন্ধা নদের উপর নির্মাণাধীন কাওনা সেতুর কাজ ফেলে আবারো উধাও হওয়ার অভিযোগ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এস আলমের। সেতুর কাজ করতে গিয়ে বহমান নদের পানি প্রবাহ বন্ধ করে ডাইভারসনে ভাংগনের কারণে প্রতিদিন হাজারো যাত্রীবাহি ও মালবাহি পরিবহণ। ৩ বছর আগে কাজ শুরু করে কয়েকদফা মেয়াদ বাড়িয়ে বিগত বছরের ৩০মে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও সেতুর ৭০ভাগ কাজ শেষ হলেও বাকী কাজ দীর্ঘদিনেও শেষ না করায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতি দিন হাজারো যাত্রীদের। জেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর উধাও হওয়া ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে চিঠি লিখেছেন অধিদপ্তরে।

শনিবার (২০ মে) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়; ডাইভারসনের ভাংগনের কবলে একটি কাভার্ড ভ্যান উল্টে রয়েছে। এরকম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে হোসেনপুর-পাকুন্দিয়া উপজেলার লাখো যাত্রীদের। ঈদ যাত্রায় ঢাকা থেকে কাপাসিয়া-টোক হয়ে বাড়ি ফেরা যাত্রীদের যোগাযোগের সহজ রাস্তা হওয়ার এ অঞ্চলের আগত যাত্রীদের চিরচেনা; এ অংশের ভাংগনে অনেককে বিকল্প রাস্তার খোঁজে পিছন ফিরে ১০কিলোমিটার পাকুন্দিয়া গিয়ে আবারো ২৫ কিলোমিটার ঘুরে বাড়ি ফিরতে হবে।

উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ৩৭৮০ মি: চেইনেজে ৪০মিটার দৈর্ঘের পিসি গার্ডার ব্রীজের নির্মাণ কাজ পায় ২০২১ সালের ১১ ফ্রেব্রুয়ারী কুমিল্লার এইচ/এন-৪৬৪, পুনাম পেলস্, এইচটিবিএল সার্চ (জেবেকা) এর সাথে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এ সড়কের কাওনা এলাকার নরসুন্ধা নদের উপর ব্রীজটি নির্মাণের চুক্তি হলেও ক্ষমতাসীন দলের দাফট দেখিয়ে সাব-কন্টাক হিসেবে কিশোরগঞ্জের এস আলম চুক্তিবদ্ধ হয়। কয়েক দফা মেয়াদ বাড়িয়ে কাজ সমাপ্ত হওয়ার কথা ছিল বিগত বছরের ৩০ মে। সেতু নির্মাণের আগে কোন রকম সর্তকতামূলক সাইনবোর্ড না থাকায় গাজীপুর থেকে ছেড়ে আসা সিএনজি চালক সোজা রাস্তায় অসর্তকতার কারণে গাড়ি চালাতে গিয়ে তিনি গুরুতর আহত হন; এ সময় এক নারী যাত্রী নিহত হন। এ ছাড়াও অবৈধ বৈদ্যুতিক লাইনে নিহত হয় কাওনা এলাকার নাঈম নামের এক কৃষক।

হোসেনপুর উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী গালীব মুরশীদ জনদুর্ভোগের কথা স্বীকার করে বলেন, যে পর্যন্ত কাজ শেষ হয়েছে সে অনুযায়ী বিল পরিশোধ করা হলেও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজটি করছে না। এ রকম একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা এভাবে পড়ে থাকলে জনদুর্ভোগ হবেই। কিশোরগঞ্জ জেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আমিরুল ইসলাম অসহায়াত্ব প্রকাশ করে বলেন, এ নিয়ে আপনিসহ অনেকেই অনেক নিউজ করেছেন। আমি অনেক চেষ্টা করেও ঠিকাদারকে দিয়ে কাজটি করাতে পারছি না। কযেকদিন যাবত আলমের নাম্বারে (ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক) ফোন করেও নাম্বার বন্ধ পাচ্ছি। এখন বাধ্য হয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কাজটি বাতিলের জন্য চিঠি লিখেছি। কাজটি বাতিল করে পুণ: রায় দরপত্র আহ্বান করে বাকি কাজ অচিরেই শেষ করতে হবে। এর পরেও যদি সে কাজটি করে ফেলতো আমি বিল পেমেন্ট করার ব্যবস্থা করে দিতাম।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20

সর্বশেষ - কমলনগর উপজেলা

আপনার জন্য নির্বাচিত